শুক্রবার, ১৯ জুলাই ২০২৪ইংরেজী, ৪ শ্রাবণ ১৪৩১ বাংলা ENG

শিরোনাম : সিলেট-সুনামগঞ্জ মহাসড়কে শাবি শিক্ষার্থীদের অবস্থান, পুলিশের সঙ্গে বাক বিতন্ডা বৃহস্পতিবার সারাদেশে ‘কমপ্লিট শাটডাউন’ কর্মসূচি ঘোষণা আন্দোলনে নেমে দুষ্কৃতকারীদের সংঘাতের সুযোগ করে দেবেন না: জাতির উদ্দেশে প্রধানমন্ত্রী যুক্তরাষ্ট্রের প্রাক্তন প্রেসিডেন্ট ট্রাম্পকে লক্ষ্য করে গুলি, ফুটো হয়ে গেছে কানের ওপরের অংশ লাফার্জহোলসিম'র টেকসই বর্জ্য ব্যবস্থাপনা সুবিধা পরিদর্শণে নাসিক আমাদের সিলেট হলো সম্প্রীতির এক উজ্জ্বল দৃষ্টান্ত : ইসকন মন্দিরে প্রতিমন্ত্রী শফিকুর রহমান চৌধুরী বিপিজেএ’র বিভাগীয় কমিটির সভাপতি নির্বাচিত হওয়ায় ইউসুফ আলী সংবর্ধিত নানা আয়োজনে শ্রী শ্রী জগন্নাথ দেবের রথযাত্রা পালিত সিলেট হকার মার্কেটে রোগাক্রান্ত গরু নিয়ে তোলপাড়, বিক্রির আশঙ্কা সিলেটে জুলাই জুড়ে বৃষ্টি-বন্যার আভাস

উপশহর মাঠে মেলা না দিতে পররাষ্ট্রমন্ত্রীর কাছে আবেদন ও উইমেনস চেম্বারকে হাইকোর্টের চিঠি

স্টাফ রিপোর্ট::

২০২৩-১০-০৩ ০৬:১১:৫৫ /

সিলেট নগরীর উপশহর মাঠে মাত্র ৭ মাসের মধ্যে ফের মেলা করার প্রস্তুতি নিচ্ছে সিলেট উইমেনস চেম্বার অব কমার্স এন্ড ইন্ডাস্ট্রির চেয়ারম্যান স্বর্ণলতা রায় ও ইভেন্টে থাকা মেলা ব্যবসায়ী এম এ মঈন খান বাবলু।

এ নিয়ে তাদের মধ্যে ৩০ লক্ষ টাকার একটি চুক্তিও হয়েছে। আর বাবলু আরেকটা চুক্তি করেছেন মেলা ব্যবসায়ী আমিরের সাথে।

তবে নগরীর উপশহর আই ব্লক একমাত্র খেলার মাঠে মেলার আয়োজন না করতে বাংলাদেশ সরকারের পররাষ্ট্রমন্ত্রী ও সিলেট-আসনের সংসদ সদস্য ড. এ কে আব্দুল মোমেনের কাছে আবেদন করেছেন উপশহর কল্যাণ সংস্থা, উপশহর স্পোর্টিং ক্লাব ও স্থানীয় জনসাধারণ।

এছাড়াও জাতীয় গৃহায়ন কর্তৃপক্ষ, সিলেটের জেলা প্রশাসক, সিলেট মেট্রোপলিটন পুলিশ কমিশনার, সিলেট সিটি মেয়র, ২২নং ওয়ার্ড কাউন্সিলরসহ সংশ্লিষ্ট বিভিন্ন দফতরে এ চিঠি প্রেরণ করা হয়েছে বলে জানিয়েছেন উপশহর কল্যাণ সংস্থা ও স্পোর্টিং ক্লাব নেতৃবৃন্দ।

তারা আরও জানান, উপশহর আই ব্লক মাঠে মেলার আয়োজন না করতে ইতিমধ্যে বাংলাদেশ উচ্চ আদালতে একটি মামলা চলমান রয়েছে। সেই মামলার পরিপ্রেক্ষিতে সিলেট উইমেনস চেম্বার অব কমার্স এন্ড ইন্ডাস্ট্রির চেয়ারম্যান স্বর্ণলতা রায় , সিলেট মেট্রোপলিটন পুলিশ কমিশনার, জাতীয় গৃহায়ন কর্তৃপক্ষ, সিলেটের জেলা প্রশাসক সিলেট সিটি করপোরেশন মেয়র আরিফুল হক চৌধুরী, ওসি শাহপরাণ থানাকে গত ২৯ আগষ্টে সুপ্রীম কোর্টের আইনজীবী সৈয়দ ফজলে এলাহী নোটিশ প্রেরণ করেন।

 দুইবছর আগে উপশহর মাঠে মেলার আয়োজন করে মাঠটিকে খেলাধুলা ও হাটাচলার অনুপযোগী করে ফেলে। পরবর্তীতে মাঠটি সংস্কার করে সিলেট সিটি করপোরেশন। চলতি বছরের ফেব্রুয়ারি মাসে ফের উপশহর মাঠে মেলা আয়োজন করে সিলেট মেট্রোপলিটন চেম্বার অব কমার্স এন্ড ইন্ডাস্ট্রি ও শেখ রাসেল জাতীয় শিশু কিশোর পরিষদ। মেলাটি শেষ হওয়ার পর পুনরায় মাঠ সংস্কারের জন্য প্রায় সাড়ে তিন কোটি টাকা বরাদ্দ দিয়ে, ওপেন টেন্ডারের মাধ্যমে কাজ শুরু করে সিলেট সিটি করপোরেশন। যা বর্তমানে চলমান।

কিন্তু সিলেট উইমেনস চেম্বার ও মেলা ব্যবসায়ী বাবলু এসকল নোটিশের কোন তোয়াক্কা না করে, গত ৩ আগষ্ট ২৫,৩৮,০০০০,৫০৩,৭৫,০৪০,২২,৬৪১৪ স্মারকে গৃহায়ন কর্তৃপক্ষের কাছ থেকে মেলার জন্য নিয়ে আসা মাঠের অনুমতি পাক্কা করে মেলা আয়োজন করতে সংশ্লিষ্ট সকল দফতরকে ম্যানেজার তোড়জোড় শুরু করেন।

এরই পরিপ্রেক্ষিতে আই ব্লক মাঠে মেলার অনুমতি বাতিল পূর্বক, মেলা না হওয়ায় জন্য উপশহর কল্যাণ সংস্থা ও স্পোর্টিং ক্লাব পৃথক পৃথকভাবে পররাষ্ট্রমন্ত্রীসহ অন্যান্য দফতরের আবেদন করেন।

উপশহর স্পোর্টিং ক্লাবের সভাপতি জাকির ও সাধারণ সম্পাদক ফাহিম জানান, উপশহরের খেলাধূলার জন্য একমাত্র মাঠ হলোউআই ব্লক মাঠ। কিন্তু গত দুইবারে ভিন্ন ভিন্ন সংগঠনের নামে উপশহর মাঠে মেলা আয়োজন করার ফলে সেখানে খেলার পরিবেশ নষ্ট হয়ছে।

আর খেলাধূলা থেকে বঞ্চিত হয়েছেন স্থানীয়রা। অথচ আইনে সম্পূর্ণ নিষেধ রয়েছে, যে খেলার মাঠে কোন মেলা বা বাণিজ্যিক কার্যক্রম করা যাবেনা। বর্তমানে মাঠ সংস্কারে কাজ করছে সিলেট সিটি করপোরেশন। তাই আমরা জীবন থাকতে এ মাঠে আর কোন মেলা হতে দিবো না। আমরা খেলার মাঠে মেলা চাই না।

উপশহর কল্যাণ পরিষদের সাধারণ সম্পাদক কাজী মো. মুজিবুর রহমান জানান, পরপর দুইবার মেলা আয়োজনে নষ্ট হয়েছে পরিবেশ। মেলার কারণে উপশহরে চুরি, ছিনতাই, ইভটিজিং বেড়ে যায়। এছাড়া মাঠের পাশেই মসজিদ ও উচ্চ মাধ্যমিক বিদ্যালয় রয়েছে। মেলার ফলে নামাজের পরিবেশ ও বাচ্চাদের লেখাপড়া নষ্ট হয়। এছাড়াও বিভিন্ন বয়সের লোকজনের ব্যায়াম এবং হাটাচলা করার পরিবেশ নষ্ট হয়। তাই আমরা প্রতিবারই মেলার বিপক্ষে অবস্থান নিয়েছি ও প্রতিবাদ সভা, মানববন্ধন করেছি। বর্তমানে যদি উপশহর মাঠে কোন মেলার আয়োজন হয়, তাহলে জনসাধারণকে নিয়ে কঠোর হস্তে তা দমন করা হবে।

 

সিলেট সিটি করপোরেশন সূত্র জানায়, উপশহর মাঠটি সিটি করপোরেশন এলাকায় রয়েছে। মাঠে দুইবার মেলা আয়োজনের ফলে মাঠের পরিবেশ নষ্ট হয়েছ। তাই সিটি করপোরেশন থেকে বরাদ্দ দিয়ে মাঠের উন্নয়ন কাজ চলছে।

উল্লেখ্য, সিলেটের উপশহর অভিজাত আবাসিক এলাকা। প্রায় অর্ধলাখ বাসিন্দার বসবাস ওই এলাকায়। একমাত্র মাঠে বিকাল হলেই খেলাধুলা করে স্থানীয় শিশু, কিশোররা। এমনকি হাঁটার জন্য এই মাঠকে ব্যবহার করেন বয়োবৃদ্ধরা। তাই এ মাঠে মেলার আয়োজন বন্ধে তুমুল আন্দোলনের প্রস্তুতি নিচ্ছেন এলাকাবাসী। যার পরিপ্রেক্ষিতে খেলার মাঠে মেলার আয়োজনের প্রতিবাদে উপশহরের একাধিক সংগঠনের পক্ষ থেকে লিখিত আবেদন করা হয়েছে। এতে উপশহরবাসীর এই খেলার মাঠে মেলার অনুমতি অবিলম্বে বাতিল করার দাবি জানায়। কারণ; এখানে মেলা হলে গোটা এলাকার পরিবেশ নষ্ট হয়। যন্ত্রণা ভোগ করতে হয় পথচারী থেকে শুরু করে স্কুল মাদ্রাসার শিক্ষার্থী এবং দু’টি মসজিদের মুসল্লিদের।

এ জাতীয় আরো খবর

সিলেট তামাবিল মহাসড়কে চিনি বোঝাই ট্রাকের ধাক্কায় গ্যাস ফিল্ড কর্মকর্তা নিহত

সিলেট তামাবিল মহাসড়কে চিনি বোঝাই ট্রাকের ধাক্কায় গ্যাস ফিল্ড কর্মকর্তা নিহত

বিশ্বনাথে বাস-লেগুনার মুখোমুখি সংঘর্ষে দুই যাত্রী নিহত

বিশ্বনাথে বাস-লেগুনার মুখোমুখি সংঘর্ষে দুই যাত্রী নিহত

যেকোনো দুর্যোগ-দুর্বিপাকে আওয়ামী লীগই মানুষের পাশে থাকে: প্রতিমন্ত্রী শফিক চৌধুরী

যেকোনো দুর্যোগ-দুর্বিপাকে আওয়ামী লীগই মানুষের পাশে থাকে: প্রতিমন্ত্রী শফিক চৌধুরী

 পাহাড়ী ঢলে জৈন্তাপুরে নিম্নাঞ্চল প্লাবিত

পাহাড়ী ঢলে জৈন্তাপুরে নিম্নাঞ্চল প্লাবিত

আবারো আলোচনায়: ‘দি ম্যান এন্ড কোম্পানি’

আবারো আলোচনায়: ‘দি ম্যান এন্ড কোম্পানি’

সিলেটে মৌসুমের সর্বোচ্চ তাপমাত্রা, অতীষ্ট জনজীবন

সিলেটে মৌসুমের সর্বোচ্চ তাপমাত্রা, অতীষ্ট জনজীবন