মঙ্গলবার, ২০ এপ্রিল ২০২১ইংরেজী, ৬ বৈশাখ ১৪২৮ বাংলা ENG

সিলেটে লকডাউন মানছে না কেউ !

সুলতান সুমন::

২০২১-০৪-০৭ ১৯:০৬:০১ /

প্রতিদিনই ভয়াল রুপ ধারণ করছে করোনা ভাইরাস। দ্বিগুণ হারে বাড়ছে আক্রান্তের সংখ্যা। প্রতিদিনই দীর্ঘ হচ্ছে মৃত্যুর মিছিল। ফলে গত সোমবার (৫ এপ্রিল) থেকে এক সপ্তাহের জন্য দেশব্যাপী লকডাউন ঘোষণা করা হয়। লকডাউন নিয়ে জারি করা হয় প্রজ্ঞাপন। কিন্তু সিলেটে কেউই মানছে না প্রজ্ঞাপনের নির্দেশনা। সর্বত্রই অমান্য হচ্ছে লকডাউন নির্দেশনা। স্বাস্থ্যবিধি, সামাজিক বা শারীরিক দুরত্ব বজায় রেখে কোথাও চলছে না কেউ। অনেকেই মাস্ক মুখে পড়ছেন না। দোকানপাট খোলার দাবিতে সিলেটের ব্যবসায়ীরা মঙ্গলবার (৬ এপ্রিল) সামাজিক বা শারীরিক দুরত্ব বজায় না রেখে, মুখে মাস্ক না পড়ে বিক্ষোভ করেন। আর বুধবার (৭ এপ্রিল) ব্যবসায়ীরা আগামী রোববার (১১ এপ্রিল) থেকে ব্যবসা প্রতিষ্ঠান খোলার ঘোষণা দেন। 

 

নির্দেশনা অমান্য করে সিলেট সিটি করপোরেশন এলাকার বাইরে যাত্রী পরিবহন করছে ‘নগর এক্সপ্রেস’ (টাউন বাস)। আর সিলেটের আঞ্চলিক সড়কগুলোতে লকডাউন না মেনে চলছে গণপরিবহন। বুধবার (৭ এপ্রিল) সকাল থেকে সিলেট-জকিগঞ্জ, সিলেট-বিয়ানীবাজার, সিলেট-শেরপুর, সিলেট-জাফলং, সিলেট-কোম্পানীগঞ্জ, সিলেট-সুনামগঞ্জ সড়কে বাস-মাইক্রোবাসসহ বিভিন্ন ধরণের যান চলাচল করতে দেখা গেছে। স্বাস্থ্যবিধি না মেনে আসনের অতিরিক্ত যাত্রী পরিবহন করছে বাসগুলো। এছাড়া আদায় করা হচ্ছে অতিরিক্ত ভাড়া।
এদিকে-মঙ্গলবার সড়ক পরিবহন ও সেতু মন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বুধবার থেকে সিটি করপোরেশন এলাকায় গণপরিবহন চলাচলের নির্দেশনা দেন। নির্দেশনায় তিনি বলেন, গণপরিবহন সিটি এলাকার ভেতরে চলাচল করবে। সিটির বাইরে গণপরিবহন যেতে পারবে না। বাইরে থেকেও কোন গণপরিবহন সিটির ভেতরে ঢুকতে পারবে না। 


এই নির্দেশনার পর বুধবার (৭ এপ্রিল) সকাল ৮টা থেকে সিলেটে টাউন বাস চলাচল শুরু করে। কিন্তু নির্দেশনা অমান্য করে টাউন বাস সিটি করপোরেশন এলাকার বাইরেও যাত্রী পরিবহন শুরু করেছে। নিয়ম অনুযায়ী স্বাস্থ্যবিধি মেনে এক সিট খালি রেখে যাত্রী পরিবহনের কারণে ৬০ ভাগ ভাড়া বেশি নেওয়ার কথা থাকলেও টাউন বাস অতিরিক্ত ভাড়া আদায় করছে।


এদিকে, সিলেটের আঞ্চলিক সড়কগুলোতে লকডাউন না মেনে চলছে গণপরিবহন। বুধবার (৭ এপ্রিল) সকাল থেকে সিলেট-জকিগঞ্জ ও সিলেট-বিয়ানীবাজার সড়কে বাস চলাচল করতে দেখা গেছে। স্বাস্থ্যবিধি না মেনে আসনের অতিরিক্ত যাত্রী পরিবহন করছে বাসগুলো। এছাড়া আদায় করা হচ্ছে অতিরিক্ত ভাড়া। তবে পরিবহন শ্রমিক নেতারা বলছেন, প্রশাসন বাঁধা না দেয়ায় মালিক-চালকরা নিজেদের দায়িত্বে জকিগঞ্জ ও বিয়ানীবাজার সড়কে স্বল্প সংখ্যক বাস নামিয়েছেন।


সিটি করপোরেশন এলাকায় গণপরিবহন চলাচলের অনুমতিকে পুঁজি করে সিলেট কেন্দ্রীয় বাস টার্মিনাল থেকে বুধবার সকালে জকিগঞ্জ ও বিয়ানীবাজারের উদ্দেশ্যে বাস চলাচল শুরু হয়। লকডাউনের আগে করোনা পরিস্থিতিতে দুই আসনে একজন যাত্রী পরিবহনের নির্দেশনা দেয়া হলেও বাসগুলোতে আসনের চেয়ে বেশি যাত্রী পরিবহন করতে দেখা গেছে। কোনো কোনো বাসে দাঁড়িয়ে ঠাসাঠাসি করেও যাত্রী পরিবহন করতে দেখা গেছে।


যাত্রীরা অভিযোগ করেন- অতিরিক্ত যাত্রী নিয়েও নির্ধারিত ভাড়ার চেয়ে ৬০ ভাগ বেশি আদায় করছেন পরিবহন শ্রমিকরা। লকডাউনের শুরুতে সারাদেশে সবধরণের গণপরিবহন চলাচল বন্ধ ঘোষণা করা হয়। তবে মঙ্গলবার সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী বুধবার থেকে সিটি করপোরেশন এলাকায় গণপরিবহন চলাচলের নির্দেশনা দেন। এই নির্দেশনাকে পুঁজি করে সিলেট-জকিগঞ্জ ও সিলেট-বিয়ানীবাজার সড়কের বাস মালিকরা তাদের বাস রাস্তায় নামান।


তবে পরিবহন শ্রমিক নেতারা বলছেন, রাস্তায় বাস চলাচল করলেও কেউ তাদেরকে বাঁধা দিচ্ছে না। তাই স্বল্পসংখ্যক বাস জকিগঞ্জ ও বিয়ানীবাজার সড়কে চলাচল করছে।


সিলেট জেলা বাস, মিনিবাস, কোচ, মাইক্রোবাস শ্রমিক ইউনিয়নের সভাপতি মো. ময়নুল ইসলাম বলেন, সিলেট সিটি করপোরেশন এলাকায় গণপরিবহন চলাচলের অনুমতি দেয়ায় স্বল্প সংখ্যক মালিক-চালক তাদের বাস জকিগঞ্জ ও বিয়ানীবাজার সড়কে নামিয়ে দিয়েছেন। রাস্তায় বাস চলাচলে প্রশাসন বাধা দিচ্ছে না। তবে যারা বাস চালাচ্ছেন, তারা তাদের নিজ দায়িত্বেই রাস্তায় নেমেছেন। সংগঠনের পক্ষ থেকে গণপরিবহন রাস্তায় না নামানোর নির্দেশ দেয়া হয়েছে।


নগর এক্সপ্রেসের তত্ত্বাবধানে থাকা কর্মকর্তা এনামুল হাসান জানান, বুধবার সকাল ৮টা থেকে টাউন বাস চলছে। সন্ধ্যা ৬টা পর্যন্ত চলবে। বাসগুলো আগের রুটে অর্থাৎ পূর্ব দিকে বটেশ^র, দক্ষিণে মোগলাবাজারের হাজীগঞ্জ ও উত্তরে সালুটিকর পর্যন্ত চলাচল করছে। অথচ সরকারি নির্দেশনা অনুযায়ী বাসগুলো পূর্ব দিকে টিলাগড়, দক্ষিণে কদমতলী ও উত্তরে চৌকিদেখি পর্যন্ত চলাচল করা কথা।


বর্ধিত ভাড়া প্রসঙ্গে এনামুল হাসান জানান, কোর্ট পয়েন্ট থেকে মোগলাবাজার হাজীগঞ্জ পর্যন্ত ২০ টাকার স্থলে ৩৫ টাকা, বটেশ^র পর্যন্ত ২০ টাকার স্থলে ৩৫ টাকা ও সালুটিকর পর্যন্ত ২৫ টাকার স্থলে ৪০ টাকা নেয়া হচ্ছে। অথচ ৬০ ভাগ ভাড়া বর্ধিত করা হলে হাজীগঞ্জ ও বটেশ্বরের ভাড়া ৩২ টাকা নেয়ার কথা।


সিটি করপোরেশন এলাকার বাইরে বাস চলাচল প্রসঙ্গে নগর এক্সপ্রেস সিটি বাস মালিক গ্রুপের আহ্বায়ক, সিটি কাউন্সিলর মখলিছুর রহমান কামরান জানান, কোর্ট পয়েন্ট থেকে বাস ছাড়ার সময় সিটি করপোরেশনের বাইরের অনেক যাত্রী উঠে পড়েন। তাই আগের রুটে বাস চলাচল করছে।সিলেটে নির্দেশনা অমান্য করে সিটি করপোরেশন এলাকার বাইরে যাত্রী পরিবহন করছে ‘নগর এক্সপ্রেস’ (টাউন বাস)। যাত্রীদের কাছ থেকে আদায়ও করা হচ্ছে বেশি ভাড়া। তবে সংশ্লিষ্টদের দাবি, যাত্রীদের সুবিধার কথা চিন্তা করে তারা আগের রুটেই যাত্রী পরিবহন করছেন।

 

এস এস

এ জাতীয় আরো খবর

 ওসমানীর ল্যাবে ১৮ জনের করোনা শনাক্ত

ওসমানীর ল্যাবে ১৮ জনের করোনা শনাক্ত

শাহপরাণ মাজারে হামলার হুমকী: পুলিশ কমিশনারের কাছে স্মারকলিপি

শাহপরাণ মাজারে হামলার হুমকী: পুলিশ কমিশনারের কাছে স্মারকলিপি

 আ'লীগ প্রতিহিংসার রাজনীতিতে বিশ্বাসী নয়: শফিক চৌধুরী

আ'লীগ প্রতিহিংসার রাজনীতিতে বিশ্বাসী নয়: শফিক চৌধুরী

শাবির ল্যাবে আরও ৭৭ জনের করোনা শনাক্ত

শাবির ল্যাবে আরও ৭৭ জনের করোনা শনাক্ত

ইয়াবাসহ ছাত্রদল নেতা নাবিল রাজা গ্রেফতার

ইয়াবাসহ ছাত্রদল নেতা নাবিল রাজা গ্রেফতার

নগরীতে ‘লকডাউন’ বাস্তবায়নে কঠোর পুলিশ

নগরীতে ‘লকডাউন’ বাস্তবায়নে কঠোর পুলিশ