বৃহস্পতিবার, ২৫ ফেব্রুয়ারী ২০২১ইংরেজী, ১৩ ফাল্গুন ১৪২৭ বাংলা ENG

ছাতকে বন বিভাগের কার্যক্রম জরাজীর্ণ ঘরে একযুগ

শাহ্ মো.আখতারুজ্জামান, ছাতক

২০২১-০২-২৩ ১৮:৪৫:৪৭ /


প্রায় এক যুগ ধরে সুনামগঞ্জের শিল্প নগরী ছাতকের বন বিভাগের নেই কোন কার্যালয়। সরকারী দপ্তরটির নেই কোন সাইনবোর্ড। কাগজে-কলমে দপ্তর থাকলেও বাস্তবে আছে এক টুকরো জমি। আর ওই জমিতে রয়েছে ভাঙ্গা-চোরা নড়বড়ে একটি টিনসেড ঘর। বেশ কিছু দিন ধরে ওই জরাজীর্ণ ঘরটিও হেলে পড়েছে। ওই ঘরে বসার মতো কোন পরিবেশও নেই। এটি এখন বন বিভাগের কার্যালয় হিসেবে পরিচিত। কার্যালয়ের জমিটি এখন অরক্ষিত ভাবে পড়ে আছে। ঢাল নেই, তলোয়ার নেই, নিধিরাম সর্দারের মতোই চলছে ছাতক উপজেলার সরকারী বন বিভাগের কার্যক্রম। বন বিভাগের সরকারী সংশ্লিষ্ট ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের অবহেলায় গুরুত্বপূর্ণ এই দপ্তরের ভবন নির্মাণ করা হয়নি।
সংশ্লিষ্ট একটি সূত্র জানায়, প্রায় এক যুগ পূর্বে হঠাৎ করে ভয়াবহ এক অগ্নিকান্ডে উপজেলার বন বিভাগের দপ্তরটি পুড়ে ভুষ্মিভুত হয়। বন বিভাগের সরকারী ওই দপ্তরটি আগুনে পুড়ে যাওয়ার ঘটনাটি নিয়ে পূরো উপজেলা জুড়ে ব্যাপক চাঞ্চল্যের সৃষ্টি হয়েছিলো। এ অগ্নিকান্ডের ঘটনা নিয়ে হয়েছে নানা মূখী আলোচনা-সমালোচনা। কিন্তু দপ্তরটি পুড়ে যাওয়ার ঘটনাটি এখনও রহস্যাবৃত রয়ে গেছে।


খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, দপ্তরের উপজেলার দায়িত্বপ্রাপ্ত বন কর্মকর্তা থাকলেও নিজ দপ্তরে বসে কার্যক্রম পরিচালনা করারও সুযোগ-সুবিধা পাচ্ছেন না তিনি। ছাতকের ওই বন কর্মকর্তা পাশ^বর্তী দোয়ারাবাজার উপজেলার বন বিভাগেরও অতিরিক্ত দায়িত্ব পালন করছেন বলে জানা গেছে। বন বিভাগের দপ্তরটি পুড়ে যাওয়ায় সরকারী কার্যালয়ের পাশে ভাঙ্গা-চোরা নড়বড়ে একটি ঘরে মাঝে মধ্যে দু’একজনকে দেখা গেলেও দায়িত্বশীল অফিস চলাকালীন সময়ে কাউকেই খোঁজে পাওয়াই মুসকিল।

বর্তমানে বন বিভাগের এক কর্মকর্তা, ২ জন নৈশ প্রহরী ও একজন পিয়নসহ কর্মরত রয়েছেন মাত্র ৪ জন। তাদের বসবাসের জন্য সরকারী কোন বাসা-বাড়ীও নেই। সরকানী বন ভুমি রক্ষার্থে এখানে নেই কোন সরকারী যানবাহন। বন বিভাগের জায়গায় জরাজীর্ণ ভুমিতে এক ঘরে ঝুঁকি নিয়ে বসবাস করছেন একজন।  


সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে, ছাতকে বন বিভাগের অধীনে সরকারী খাঁস জমিতে বর্তমানে ১টি গাছের ও ১টি মুর্তা বাগান রয়েছে। এসব বাগান গুলো রক্ষনাবেক্ষনের জন্য প্রয়োজনীয় লোকবলের সমস্যা দীর্ঘ দিনের পূরনো। কিন্তু সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের নজরদারী না থাকায় এগুলো অনেকটাই অরক্ষিত ভাবেই পড়ে রয়েছে বলে জানিয়েছেন স্থানীয় এলাকাবাসী। মুলত বন বিভাগের লোকবল স্বল্পতা ও অবকাঠামোগত সমস্যার ফলে বিভাগটির দাপ্তরিক সার্বিক কার্যক্রম বিঘ্নিত হচ্ছে।

ছাতক উপজেলা বন বিভাগের দায়িত্বে থাকা বন কর্মকর্তা নীতিশ চক্রবর্তী বলেন, ইতিমধ্যেই জেলা ও সিলেট বিভাগীয় বন বিভাগের উর্ধতন কর্মকর্তাবৃন্দ সরজমিনে পরিদর্শন করেছেন। ছাতকে বন বিভাগের নতুন কার্যালয় নির্মানের ব্যাপারে প্রস্তুতি চলছে। সুনামগঞ্জ জেলা বন বিভাগের কর্মকর্তা চয়ন ব্রত চৌধুরী বলেন, আমি এখানে নতুন যোগদান করেছি। বন বিভাগের জনবল সমস্যা শুধু ছাতকে নয়, দেশ জুড়েই আছে। কার্যালয় না থাকার বিষয়টি ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষ অবগত রয়েছেন।

 

সিলেট সান/এসএ

এ জাতীয় আরো খবর

সাংবাদিক আখতার'র বোনের মৃত্যু : ছাতক রিপোটার্স ইউনিটির শোক

সাংবাদিক আখতার'র বোনের মৃত্যু : ছাতক রিপোটার্স ইউনিটির শোক

ছাতকে ব্রীজ ভেঙ্গে যান চলাচল বন্ধ : জনদুর্ভোগ চরমে

ছাতকে ব্রীজ ভেঙ্গে যান চলাচল বন্ধ : জনদুর্ভোগ চরমে

সুনামগঞ্জে পর্যটকদের কাছে নতুন আকর্ষণ সূর্যমুখী বাগান

সুনামগঞ্জে পর্যটকদের কাছে নতুন আকর্ষণ সূর্যমুখী বাগান

পর্যটকদের ডাকছে তাহিরপুর সীমান্ত শহীদ সিরাজ লেক

পর্যটকদের ডাকছে তাহিরপুর সীমান্ত শহীদ সিরাজ লেক

 তাহিরপুরে করোনার টিকা গ্রহণ ও উদ্ধুদ্ধকরন বিষয়ে র‍্যালী

তাহিরপুরে করোনার টিকা গ্রহণ ও উদ্ধুদ্ধকরন বিষয়ে র‍্যালী

ছাতকে ব্যাংক কর্মকর্তা এখলাছুর রহমানের ইন্তেকাল

ছাতকে ব্যাংক কর্মকর্তা এখলাছুর রহমানের ইন্তেকাল