রবিবার, ২৬ মে ২০২৪ইংরেজী, ১১ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বাংলা ENG

শিরোনাম : বস্তি নয়, রিকশাওয়ালা-দিনমজুররাও থাকবে ফ্ল্যাটে: প্রধানমন্ত্রী আবারো আলোচনায়: ‘দি ম্যান এন্ড কোম্পানি’ সিলেট সচেতন নাগরিক কমিটির সকল কর্মসূচী বাতিল জেলা প্রেসক্লাবে সংবর্ধনা: সুমন'র এই অর্জন সিলেটের সাংবাদিকদের সম্মানিত করেছে কুলাউড়ায় রেললাইনে পারুলের ক্ষত বিক্ষত মরদেহ সিসিকের হোল্ডিং ট্যাক্স বাতিল, হবে রি-এসেসমেন্ট: মেয়র আনোয়ারুজ্জামান চৌধুরী চা শিল্পের নানা সমস্যা নিরসনে প্রধানমন্ত্রীর হস্তক্ষেপ কামনা বাগান মালিকদের খালেদা জিয়ার মুক্তি ও তারেকের উপর মামলা প্রত্যাহার দাবিতে লন্ডনে মিছিল-সমাবেশ প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার আন্তরিকতায় সিলেট থেকে সরাসরি হজ ফ্লাইট চালু হয়েছে : শফিক চৌধুরী হোল্ডিং ট্যাক্স বাতিলের দাবিতে ২৮মে কোর্ট পয়েন্টে সমাবেশ

বৃহস্পতিবার উদ্বোধন সার্বজনীন পেনশন কর্মসূচির

সিলেট সান ডেস্ক ::

২০২৩-০৮-১৪ ১৬:৫৬:২৪ /

চলতি সপ্তাহের শেষে সর্বজনীন পেনশন কর্মসূচির উদ্বোধন হতে যাচ্ছে। সম্প্রতি প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয় থেকে অর্থ মন্ত্রণালয়ে পাঠানো এক চিঠিতে এ তথ্য জানানো হয়।

চিঠিতে বলা হয়েছে, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা আগামী ১৭ আগস্ট (বৃহস্পতিবার) ভার্চ্যুয়াল পদ্ধতিতে এ কর্মসূচির উদ্বোধন করবেন। এতে আরও জানানো হয়, বৃহস্পতিবার সকাল ১০টায় ঢাকায় গণভবন থেকে প্রধানমন্ত্রী পেনশন কর্মসূচি উদ্বোধন করবেন।

অনুষ্ঠানে সংযুক্ত থাকবে গোপালগঞ্জ, বাগেরহাট, রংপুর জেলা ও সৌদি আরবের বাংলাদেশ দূতাবাস। উদ্বোধনের দিন থেকেই ১৮ বছর বা তার বেশি বয়সী নাগরিকরা ৪টি স্কিমের মাধ্যমে সর্বজনীন পেনশনের অন্তর্ভুক্ত হতে পারবেন। এসব স্কিমে যুক্ত হয়ে বেসরকারি খাতের কর্মচারী বা প্রবাসীরা তাদের মোট চাঁদার

চেয়ে সর্বনিম্ন ২ দশমিক ৩০ গুণ থেকে সর্বোচ্চ ১২ দশমিক ৩১ গুণ অর্থ পেনশন হিসেবে পাবেন। বয়স্ক নাগরিকদের জন্য একটি টেকসই সামাজিক নিরাপত্তা ব্যবস্থা প্রতিষ্ঠার লক্ষ্যে সরকার সর্বজনীন পেনশন স্কিম চালু করতে যাচ্ছে।

প্রথমে ১৮ থেকে ৫০ বছর বয়সীদের জন্য পেনশন চালুর ঘোষণা দিলেও সরকার পরবর্তীতে বয়সের বিষয়টি শিথিল করে ৫০ পার হওয়া ব্যক্তিদেরও এর আওতায় আনার সিদ্ধান্ত নেয়। তবে আজীবন বা ন্যূনতম ৭৫ বছর বয়স পর্যন্ত পেনশন সুবিধা পেতে কমপক্ষে ১০ বছর নির্দিষ্ট হারে চাঁদা পরিশোধ করতে হবে।

সর্বজনীন পেনশন স্কিমে অন্তর্ভুক্ত হওয়ার পর চাঁদার হার এবং স্কিম পরিবর্তন করার সুযোগ থাকবে। আপাতত চার শ্রেণির জনগোষ্ঠীর জন্য চার ধরনের পেনশন কর্মসূচি চালু করা হচ্ছে। এগুলোর নাম হচ্ছে প্রগতি, সুরক্ষা,

সমতা ও প্রবাসী। এর মধ্যে বেসরকারি খাতের চাকরিজীবীদের জন্য ‘প্রগতি’, স্বকর্মে নিয়োজিত ব্যক্তিদের জন্য ‘সুরক্ষা’, প্রবাসী বাংলাদেশিদের জন্য ‘প্রবাসী’ ও দেশের নিম্ন আয়ের জনগোষ্ঠীর জন্য ‘সমতা’ শীর্ষক কর্মসূচি চালু করা হবে।

এ জাতীয় আরো খবর

বস্তি নয়, রিকশাওয়ালা-দিনমজুররাও থাকবে  ফ্ল্যাটে: প্রধানমন্ত্রী

বস্তি নয়, রিকশাওয়ালা-দিনমজুররাও থাকবে ফ্ল্যাটে: প্রধানমন্ত্রী

এমপি আনারের লাশ খণ্ডবিখণ্ড, চাঞ্চল্যকর তথ্য

এমপি আনারের লাশ খণ্ডবিখণ্ড, চাঞ্চল্যকর তথ্য

তাপমাত্রা বাড়লেই বেড়ে যায় লোডশেডিং

তাপমাত্রা বাড়লেই বেড়ে যায় লোডশেডিং

জিম্মি বাংলাদেশি জাহাজে সশস্ত্র আরও জলদস্যু, পরিস্থিতি উদ্বেগজনক

জিম্মি বাংলাদেশি জাহাজে সশস্ত্র আরও জলদস্যু, পরিস্থিতি উদ্বেগজনক

জলদস্যুদের কবলে জিম্মি নাবিকদের উদ্ধারে বৈঠক ডেকেছে পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়

জলদস্যুদের কবলে জিম্মি নাবিকদের উদ্ধারে বৈঠক ডেকেছে পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়

আজ পবিত্র শবেবরাত

আজ পবিত্র শবেবরাত